চকরিয়ার ৬ ইউপি নির্বাচনে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে ,নিশ্চয়তা প্রশাসনের

chakaria-up-26-4-16_1স্টাফ রিপোর্টার :
নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৭মে চকরিয়া উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে উদ্বেগ-উৎকন্ঠায় থাকা প্রার্থীদের সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনের বিষয়কে সামনে রেখে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন প্রার্থীদের নিয়ে গতকাল ২৬এপ্রিল বিকাল ৪টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়ত মোহনায় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাহেদুল ইসলাম। সভায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: মাসুদ আলম, চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: জহিরুল ইসলাম খান। ৬টি ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: সাখাওয়াত হোসেন, ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকতা কৃষিবীদ মো: আতিক উল্লাহ, বদরখালী ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: সাইফুর রহমান, পূর্ববড়ভেওলা ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: খুরশিদুল আলম চৌধুরী, কোনাখালী ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকর্তা ডা: চৌধুরী মোর্শেদ আলম এবং বিএমচর ইউনিয়ন রিটার্নিং কর্মকর্তা ডা: সুজন কানুনগো।

মতবিনিময় সভায় প্রত্যেক প্রার্থীরা বলেন, ভোটের দিন ভোট কেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপার ছিনতাই সহ যেন কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা কিংবা পেশিশক্তি প্রয়োগ হতে নাপারে সেজন্য আইনশৃংখলা বাহিনীকে শক্ত অবস্থান নিতে হবে। তারা প্রশাসনকে কোন প্রকার পক্ষ-পাতিত্বমূলক আচরণ না করারও আহবান করেন।

সমাপনী বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাহেদুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে কোন প্রকার অনিয়ম বরদাশত করা হবেনা। ভোট কেন্দ্রের শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আইনশৃংখলা বাহিনী মোতায়েন থাকবে। নির্বাচন কমিশনের অনুমোদিত পর্যবেক্ষক ছাড়া কোন বহিরাগত লোক ভোট কেন্দ্রের ভেতর পাওয়া গেলে সর্বোচ্চ ৬মাসের কারাদন্ড এবং ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হবে।

ফলে সাধারণ ভোটাররা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো: সাখাওয়াত হোসেন বলেন, শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনের জন্য প্রত্যেক ভোট কেন্দ্রে ৭জন পুলিশ ও ১৮জন আনসার সদস্য নিয়োজিত থাকবে। পাশাপাশি প্রতি ইউনিয়নে ১জন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, পুলিশের ১টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, পুলিশের ৩টি মোবাইল টীম, প্রতি ইউনিয়নে র‌্যাবের ১টি মোবাইল টীম এবং বিজিবি’র মোবাইল টীম দায়িত্ব পালন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*