দেশে করোনায় আরও ৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৫: আইইডিসিআর

ঢাকা অফিস :: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৫ জন নতুন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় আইইডিসিআরসহ দেশের বিভিন্ন ল্যাবরেটরিতে করোনা আক্রান্ত সন্দেহভাজন ৪৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৫ জন শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩০ জন ও নারী ৫ জন। নতুন যাদের শরীরে এ ভাইরাস ধরা পড়েছে তাদের ১২ জনই নারায়ণগঞ্জের। এ নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৩ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়। আর মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়াল ১২ জনে। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে নতুন করে কেউ সুস্থ হয়নি। সোমবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন প্রেসব্রিফিংয়ে আইইডিসিআর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা এসব তথ্য জানান। যদিও এরআগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন ভিন্ন তথ্য। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৯ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। ৪ জন মারা গেছেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। অবশ্য স্বাস্থ্য মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, নামের বিভ্রাটের কারনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তখন মৃতের সংখ্যা ৪ জন জানিয়েছিলেন। তাছাড়া আক্রান্তের সংখ্যাও তখন পর্য়ন্ত ২৯ জনই ছিল। তথ্য নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো সুযোগ নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন। আইইডিসিআরের পরিচালক জানান, বয়সভিত্তিক হিসেবে নতুন আক্রান্ত ৩৫ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ১১ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছর। এরপর ২১ থেকে ৩০বছর বয়সী ৬ জন। এলাকাভিত্তিক বিশ্লেষণে দেশে শনাক্তকৃত মোট ১২৩ জন করোনা রোগীর মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৬৪ জন রাজধানী ঢাকার। স্বাস্থ্য মহাপরিচালক অ্ধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, এ পর্যন্ত দেশে ৬৬ হাজার ৫১১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন ও ২৯৯ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইসহ সর্বমোট ৬৬ হাজার ৮১০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭০৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন ও ৩০ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টানসহ মোট ৭৩৯ জনকে কোয়ারেন্টাইনে আনা হয়। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩ জনকে আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট ৪৪৩ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। বর্তমানে ১০৭ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর থেকে প্রায় নিয়মিত কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর দিচ্ছিল আইইডিসিআর। এরমধ্যে ৫ এপ্রিল একবারে ১৮ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়। আর তার পরদিন অর্থাৎ আজ আবার নতুন করে ৩৫ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে জানানো হলো। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর একদিনে এটিই সর্বোচ্চ আক্রান্তের খবর। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে; যার মূলে রয়েছে মানুষে মানুষে সামাজিক দূরত্ত বজায় রাখা। সে বিষয়টি মাথায় রেখে গৃহীত পদক্ষেপগুলোর মধ্যে সর্বশেষ মুসল্লিদের ঘরে নামাজ পড়ার আহ্বান জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। করোনা ভাইরাস ঠেকাতে মুসলিস সংখ্যাগরিষ্ঠ বহু দেশই এর আগে এ পদক্ষেপ নিয়েছে। বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১২ লাখ ৭৩ হাজার ৯৯০ জন। যুক্তরাষ্ট্রের পরপরই সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে স্পেনে; ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৪৬ জন। এছাড়া ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১ লাখ ২৮ হাজার ৯৪৮।এছাড়া বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এখন ৬৯ হাজার ৪৪৪ জন। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ইতালিতে; ১৫ হাজার ৮৮৭। এরপর ১২ হাজার ৬৪১ মৃত্যু নিয়ে ইউরোপের আরেক দেশ স্পেনের অবস্থান দ্বিতীয়। তবে আড়াই লাখের বেশি রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*